১৩ হাজার টাকায় এসারের দারুন ল্যাপটপ!

loading...

acer-notebookহাল আমলে প্রযুক্তির ছোঁয়া লেগেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও। শ্রেণি কক্ষগুলো এখন মাল্টিমিডিয়া ক্লাশ রুমে রূপান্তরিত হয়েছে। শিক্ষকরা প্রজেক্টরের মাধ্যমে লেকচার দিচ্ছেন। ক্লাশ নোট কিংবা অ্যাসাইনমেন্ট এখন আর হার্ডকপিতে জমা দিতে হয় না। সবি হয় কম্পিউটারে। এমন অবস্থায় প্রত্যেক শিক্ষার্থীরই একটা ল্যাপটপ কিংবা নোটবুক চাই। কিন্তু অনেক পরিবারেরই সক্ষমতা নেই তার স্কুলগামী সন্তানের জন্য জুতসই একটা ল্যাপটপ কিনে দেয়া। এই সমস্যার সমাধানে এগিয়ে এসেছে তাইওয়ানের প্রযু্ক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এসার। প্রতিষ্ঠানটি স্বল্প দামে ক্লাউডবুক ১১ এবং ক্লাউডবুক ১৪ নামে দুটি ল্যাপটপ বিক্রি করার উদ্যোগ নিয়েছে।

loading...

এসারের ক্লাউডবুক ১১ এবং ১৪ তে আছে ১১ ইঞ্চির ডিসপ্লে, ১.৬ গিগাহার্টজের সেলেরন প্রসেসসর, ২ জিবি র‌্যাম, ফুল সাইজ কিবোর্ড। এই ক্লাউডবুকে ১৬ জিবি বিল্টইন মেমোরি রয়েছে। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে মেমোরি বাড়ানোর সুযোগ রয়েছে। চাইলে ইউএসবি পোর্টের মাধ্যমে এক্সটার্নাল হার্ডডিস্ক ব্যবহার করা যাবে। ক্লাউড স্পেস ব্যবহারের সুবিধা তো রয়েছেই। পাশপাশি এইচডিএমআই পোর্টের মাধ্যমে যেকোনো ডিসপ্লে, প্রজেক্টর সংযোগ দেয়া যাবে। এটি দিয়ে পুরো কম্পিউটারের সুবিধা নেয়া যাবে।

এই ক্লাউডবুকটিতে আছে ৪৮০ পিক্সেলের ওয়েবক্যাম। ফলে ভিডিও কল করার সুবিধা পাওয়া যাবে। এটিতে সম্পূর্ণ চার্জ দিলে ৬ থেকে ৭ ঘন্টা ব্যাকআপ পাওয়া যাবে। এই ক্লাউডবুক দুটিতেই থাকবে উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেম।

যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে এসার ক্লাউকবুক ১১ এর মূল্য ঠিক করা করেছে ১৬৯ ডলার। বাংলাদেশি টাকায় এটির মূল্য দাঁড়ায় ১৩ হাজার ১৩৭ টাকা। অন্যদিকে এসার ক্লাউডবুক ১৪ এর মূল্য ১৯৯ ডলার। যা কিনা বাংলাদেশি মূদ্রায় ১৫ হাজার ৪৬৯ টাকা।

এসার জানিয়েছে, ক্লাইডবুক ১১ অাগস্টে এবং ক্লাউডবুক ১৪ সেপ্টেম্বরে বাজারে আসবে।